ছবি তুলতে কমবেশি আমরা সবাই পছন্দ করি। কোথাও ঘুরতে গেলে, কোনো অনুষ্ঠানে গেলে বা বন্ধুবান্ধবের জমায়েত হলে সেখানে কোনো ছবি তোলা হবে না, তা অসম্ভব। আর বিভিন্ন ছবিভিত্তিক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম যেমন- ফেসবুক, ইন্সটাগ্রাম, স্ন্যাপচ্যাট, ইত্যাদির যুগে পারসোনাল ও গ্রুপ ফটো উভয়েরই গুরুত্ব বৃদ্ধি পেয়েছে।

আধুনিক স্মার্টফোনের বদৌলতে এখন অনেক সহজেই ছবি তোলা সম্ভব। কিন্তু মনের মতো উচ্চ রেজ্যুলেশনে ছবি তুলতে ‘ডিএসএলআর’ বা ‘ডিজিটাল সিঙ্গেল লেন্স রিফ্লেক্স’ ক্যামেরা এখনো অদ্বিতীয়। স্মার্টফোন দিয়ে ছবি তোলা গেলেও সেগুলোর রেজ্যুলেশন মনমতো হয়না সবসময়, তাই ডিএসএলআর ক্যামেরা বিভিন্ন স্থানে ছবি তোলার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় ভূমিকা পালন করে।

অনেকের কাছে ছবি তোলা নেশার মতো, অনেকের আবার পেশাদার কাজে ছবি তোলার প্রয়োজন হয়। অনেকে আবার শুধু শখের বশেই ছবি তুলে থাকেন। সবক্ষেত্রেই প্রয়োজন হয় ভালো ক্যামেরার। দেশে বিভিন্ন কোম্পানির বিভিন্ন মডেলের ডিএসএলআর ক্যামেরা পাওয়া যায়। কিন্তু খুব ভালো ব্র্যান্ডের ভালো মডেলের ক্যামেরা কিনতে গেলে অনেক টাকা গুনতে হতে পারে আপনাকে।

তার মানে এই নয় সব ভালো ডিএসএলআর ক্যামেরার দাম বেশি। সুলভ মূল্যে সকলের হাতের নাগালের মধ্যেই রয়েছে বেশ ভালো মানের ডিএসএলআর, যেগুলো কিনে যেকেউ মনমতো ভালো ছবি তোলার আকাঙ্ক্ষা পূরণ করতে পারেন। বাংলাদেশে পাওয়া যায় এমন ভালো ব্র্যান্ড ও মডেলের ৫ টি সুলভ মূল্যের ডিএসএলআর ক্যামেরার তালিকা নিয়ে এই লেখাটি।

১. নিকন ডি৭৫০ (Nikon D750):

ফুল ফ্রেম ডিএসএলআর গুলোর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় হলো নিকন ডি৭৫০। নিকন ব্র্যান্ডের এফএক্স ফরম্যাটের  ক্যামেরাগুলোর মধ্যে এটি হলো সবচেয়ে ছোট এবং হালকা। অনেক কম আলোতেও হাই রেজ্যুলেশনের ছবি তুলতে পারে এই ক্যামেরাটি। ২৪.৩ মেগাপিক্সেলের এই ক্যামেরাটির কন্টিনিউয়াস শ্যুটিং স্পিড ৬.৫ এফপিএস। এর আইএসও হচ্ছে ১০০ থেকে ১২,৮০০, যা ৫১,২০০ পর্যন্ত বাড়ানো যায়।

নিকন ডিএক্স লেন্স ব্যবহার করা হয় এই ক্যামেরায়, যা দ্বারা ১০৮০ পিক্সেল পর্যন্ত রেজ্যুলেশনের ভিডিও শ্যুট করা যায়। এক্সপার্ট লেভেলের ফটগ্রাফার দের জন্য এই ক্যামেরা উত্তম। বাংলাদেশে এই ক্যামেরার বডি এর বর্তমান বাজারদর প্রায় ১ লাখ ১৭ হাজার টাকার মতো।

নিকন ডি৭৫০; ছবি: digitaltrends.com

২. নিকন ডি৭২০০ (Nikon D7200):

ডিএসএলআর ক্যামেরা প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ‘নিকন’ এর আরেকটি জনপ্রিয় ও উন্নতমানের মডেল হলো নিকন ডি৭২০০। নিকন পরিবারের সবচেয়ে নতুন সংযোজন এই মডেলটি। এই ক্যামেরাটিতে ধুলাবালি ও আবহাওয়া প্রতিরোধক থাকায় এটি দীর্ঘস্থায়ী হয়। ৫১ টি ফোকাস পয়েন্ট থাকায় এই ক্যামেরাটি ওয়াইল্ড লাইফ ও স্পোর্টস ফটোগ্রাফারদের নিকট খুব জনপ্রিয়। এই ক্যামেরার ফাস্ট অটোফোকাসিং সিস্টেমটিও অসাধারণ।

এতেও নিকন ডিএক্স ব্যবহার করা হয়েছে লেন্স হিসেবে এবং এর রেজ্যুলেশন ২৪.২ মেগাপিক্সেল। এর আইএসও সংখ্যা ১০০-২৫,৬০০ যা বাড়িয়ে ১,০২,৪০০ পর্যন্ত নেয়া সম্ভব। ১০৮০ পিক্সেল মানের ভিডিও শ্যুট করা যায় এই ডিএসএলআর ক্যামেরা দিয়ে। বর্তমানে বাংলাদেশি টাকায় এর বাজারদর প্রায় ৬৪ হাজার টাকা।

নিকন ডি৭২০০; ছবি: backscatter.com

৩. ক্যানন ৮০ডি (Canon 80D):

ডিএসএলআর ক্যামেরা ম্যানুফ্যাকচারিং ব্র্যান্ড গুলোর মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় একটি ব্র্যান্ড হলো ‘ক্যানন’। ক্যাননের বেশ কিছু উন্নতমানের মডেল রয়েছে যেগুলোর দাম ১ লক্ষেরও কম। তেমনই একটি মডেল হলো ক্যানন ৮০ডি। এর বেশকিছু উন্নত  ফিচার রয়েছে যেগুলো অ্যামেচার ও সেমি প্রোফেশনাল ফটোগ্রাফার রা সহজেই এটি ব্যবহার করতে পারে।

ক্যানন ইএফ লেন্স ব্যবহার করা হয়েছে এই ক্যামেরায় এবং এর রেজ্যুলেশন ২৪.২ মেগাপিক্সেল। এর কন্টিনিউয়াস শ্যুটিং স্পিড ৫ এফপিএস এবং আইএসও সংখ্যা ১০০-১২,৮০০, যা ২৫,৬০০ পর্যন্ত বৃদ্ধি করা যায়। ১০৮০পি রেজ্যুলেশনের ভিডিও শ্যুট করা যায় এই ক্যামেরা দিয়ে। বাংলাদেশি মুদ্রায় এর বর্তমান বাজারদর প্রায় ৯৬,০০০ টাকা।

ক্যানন ৮০ডি; ছবি: bhphotovideo.com

৪. নিকন ডি৭১০০ (Nikon D7100):

নিকন ব্র্যান্ডের এটি আরেকটি সুবিধাজনক মডেল হলো নিকন ডি৭১০০, যার ‘অপটিকাল লো পাস ফিল্টার’ শার্প ছবি তুলতে সাহায্য করে। অল্প আলোতে সুন্দর ছবি তুলতে অতিরিক্ত সুবিধা পাওয়া যায় এই ক্যামেরার বডিতে বিল্ট ইন অটো ফোকাস মোটরের কারণে। ক্যামেরাটির রয়েছে উচ্চ মাত্রার প্রফেশনাল বডি।

অন্যান্য নিকন ক্যামেরার মতো এটিতেও ব্যবহৃত হয় নিকন ডিএক্স লেন্স। ২৪.১ মেগাপিক্সেল রেজ্যুলেশনের এই ক্যামেরাটির কন্টিনিউয়াস শ্যুটিং স্পিড ৬ এফপিএস। এর আইএসও সংখ্যা ১০০-৬৪০০, যা বাড়িয়ে ২৫,৬০০ পর্যন্ত নেয়া যায়।নতুন ফটোগ্রাফারদের জন্য এই ক্যামেরাটি অত্যন্ত কার্যকরী। বাংলাদেশে এর বর্তমান মূল্য প্রায় ৭১ হাজার টাকা।

নিকন ডি৭১০০; ছবি: bhphotovideo.com

৫. ক্যানন ৭৬০ডি (Canon 760D):

ক্যানন ব্র্যান্ডের অপর একটি উন্নতমানের মডেল হলো ক্যানন ৭৬০ডি। এই মডেলটি ২০১৫ সালে বাজারে আসে। এর রয়েছে ২৪ এমপি ডিএক্স সেন্সর এবং ক্যানন ইএফ-এস লেন্স। ক্যামেরাটির রেজ্যুলেশন হলো ২৪.২ মেগাপিক্সেল এবং এটি দ্বারা ১০৮০ পি মানের ভিডিও শ্যুট করা যায়। এর কন্টিনিউয়াস শুটিং স্পিড ৫ এফপিএস এবং আইএসও সংখ্যা ১০০-১২৮০০, যা ২৫,৬০০ পর্যন্ত বৃদ্ধি করা যায়।

ফটোগ্রাফির জগতে নতুনদের জন্য এই ক্যামেরাটি একদিকে যেমন সাশ্রয়ী, অন্যদিকে ব্যবহার করতে সুবিধাজনক। দেশের বাজারে এই ক্যামেরাটির বর্তমান দাম প্রায় ৫১ হাজার টাকা।

ক্যানন ৭৬০ডি; ছবি: ephotozine.com

উপরের মডেলের ডিএসএলআর ক্যামেরাগুলো ছাড়াও আরো অনেক ভালো মানের ক্যামেরা রয়েছে যেগুলোর দাম মোটামুটি সকলের সাধ্যের মধ্যেই রয়েছে। এসকল ক্যামেরা ব্যবহার করে সহজেই একজন ফটোগ্রাফির শখ পূরণ করতে পারেন। 

ফিচার ছবি- unsplash.com

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *